1. mskamal124@gmail.com : thebanglatribune :
  2. wp-configuser@config.com : James Rollner : James Rollner
বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকরা আন্দোলন থেকে পিছু হটবে না - The Bangla Tribune
জুলাই ২০, ২০২৪ | ১:০৪ অপরাহ্ণ
শিরোনাম :

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকরা আন্দোলন থেকে পিছু হটবে না

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, জুলাই ৭, ২০২৪

সার্বজনীন পেনশন স্কিমকে (প্রত্যয় স্কিম) বৈষম্যমূলক প্রজ্ঞাপন আখ্যা দিয়ে তা বাতিলের দাবিতে সর্বাত্মক কর্মবিরতি করছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ ৩৫টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। প্রত্যয় স্কিম বাতিলের দাবিতে পূর্ণদিবস কর্মবিরতি ও অবস্থান কর্মসূচির ৫ম দিন ছিল আজ রবিবার। এর ফলে সম্পূর্ণ অচল হয়ে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস-পরীক্ষাসহ সকল কার্যক্রম।
আজ দুপুর ১২টায় ঢাবির কলা ভবনের প্রধান ফটকের সামনে শিক্ষকরা অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। এদিন সকাল থেকেই কর্মবিরতির অংশ হিসেবে সব ধরনের একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধ রাখে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকরা। কর্মসূচিতে শিক্ষকরা বলেন, এই আন্দোলন সরকার বিরোধী আন্দোলন নয়। এটা শুধু প্রত্যয়ের বিরুদ্ধে, যারা এই স্কিম চালু করে দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়কে অচল করতে চাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে। তাই এই আন্দোলন থেকে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকরা পিছু হটবে নাএর আগে গত ১ জুলাই থেকে সর্বাত্মক কর্মবিরতি শুরু করেন ঢাবি শিক্ষকরা। ফলশ্রুতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ধরনের ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। প্রত্যয় স্কিম প্রত্যাহার না হলে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার কথাও জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নেতৃবৃন্দ।
আজকের কর্মসূচিতে ঢাবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা বলেন, এই আন্দোলন থেকে শিক্ষক সমাজ পিছু হটবে না। এই আন্দোলন চলমান থাকবে, আমাদের বিজয় সুনিশ্চিত। এই আন্দোলন নিয়ে ভুল ব্যাখ্যা হচ্ছে৷ এই আন্দোলন প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে নয়। এটা শুধু প্রত্যয়ের বিরুদ্ধে, যারা এই স্কিম চালু করে দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়কে অচল করতে চাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে। শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ফেডারেশনের মহাসচিব অধ্যাপক ড. নিজামুল হক ভূইয়া বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরেই ৩ দফা দাবিতে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু আমাদের দাবি মেনে না নিয়ে শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। ২০১৫ সালে আমাদের সুপারগ্রেড দেওয়ার কথা থাকলেও কোনো এক অদৃশ্য শক্তিবলে আমরা পাইনি। আওয়ামী লীগের ২০০৮ সালের নির্বাচনী ইশতেহারে আমাদের স্বতন্ত্র বেতন কাঠামোর কথা থাকলেও তা আমরা পাইনি। এরপর আবার আমাদের উপর প্রত্যয় চাপিয়ে দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, এই আন্দোলনে সংহতি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশি ৩ শতাধিক শিক্ষক। সুতরাং আমাদের এই আন্দোলন অত্যন্ত যৌক্তিক। তাই আমরা বলতে চাই, আমাদের দাবি মানা না হলে আন্দোলন থামাবো না।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020