1. mskamal124@gmail.com : thebanglatribune :
  2. wp-configuser@config.com : James Rollner : James Rollner
সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে জয়ের উচ্ছাসে ভাসাল সামাদ - The Bangla Tribune
জুলাই ২০, ২০২৪ | ১:১৭ অপরাহ্ণ
শিরোনাম :

সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে জয়ের উচ্ছাসে ভাসাল সামাদ

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, মে ৮, ২০২৩

চলতি আইপিএলে আরও একটা রুদ্ধশ্বাস ম্য়াচ। জয়পুরে মুখোমুখি হয়েছিল রাজস্থান রয়্য়ালস ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। আগে ব্যাট করে ২১৫ রানের বিশাল লক্ষ্য দিল রাজস্থান। বড় লক্ষ্যের ম্যাচ জিততে শেষ ২ ওভারে বাকি ৪১ রান। হায়দরাবাদের কেউ হয়তো ভাবতেও পারেননি যে, ম্যাচের পরিণতি এরকম রুদ্ধশ্বাস হবে। রাজস্থান সমর্থকেরা ধরেই নিয়েছিলেন যে, ২ পয়েন্ট আসতে চলেছে তাদের ঝুলিতে।

শেষ ওভারে সন্দীপ শর্মার প্রথম চারটি বলে ১টি ছক্কা মারার পাশাপাশি ২টি দুই ও ১টি এক রান নেন আব্দুল সামাদ। পঞ্চম বলে সিঙ্গল নেন জানসেন। জয়ের জন্য শেষ বলে ৫ রান দরকার ছিল হায়দরাবাদের। সামাদ লং-অফ ফিল্ডারের হাতে ক্যাচ দেওয়ায় রাজস্থান ম্যাচ জিতে গিয়েছে বলে উৎসব শুরু করে দেন সমর্থকরা। তবে তাঁদের হতাশ হতে হয় পরক্ষণেই। কেনান সন্দীপ শর্মা নো-বল করায় বেঁচে যান সামাদ।

শেষ বলে জয়ের জন্য ৪ রান দরকার ছিল সানরাইজার্সের। শেষ বলে ছক্কা মেরে হায়দরাবাদকে ম্যাচ জেতান সামাদ। ৪ রানে ম্যাচ জেতার বদলে ৪ উইকেটে ম্যাচ হেরে মাঠ ছাড়তে হয় স্যামসনদের।

জয়পুরে টস জিতে শুরুতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন রাজস্থান দলনায়ক সঞ্জু স্যামসন। ঘরের মাঠে প্রথমে ব্যাট করে রয়্যালস নির্ধারিত ২০ ওভারে ২ উইকেটের বিনিময়ে ২১৪ রানের বড়সড় ইনিংস গড়ে তোলে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ২১৭ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। সেই সঙ্গে ১০ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে টিকে রইল প্লে অফের দৌড়েও।

এদিন, নিশ্চিত শতরান হাতছাড়া করেন জস বাটলার। তিনি ১০টি চার ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে ৫৯ বলে ৯৫ রান করে আউট হন। হাফ-সেঞ্চুরি করেন ক্যাপ্টেন স্যামসনও। তিনি ৪টি চার ও ৫টি ছক্কার সাহায্যে ৩৮ বলে ৬৬ রান করে অপরাজিত থাকেন।

এছাড়া ওপেন করতে নেমে যশস্বী জসওয়াল ৫টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ১৮ বলে ৩৫ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন। ৫ বলে ৭ রান করে নট-আউট থাকেন শিমরন হেতমায়ের।

সানরাইজার্সের হয়ে ৩৪ বলে ৫৫ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন অভিষেক শর্মা। তিনি ৫টি চার ও ২টি ছক্কা মারেন। ২৯ বলে ৪৭ রান করেন রাহুল ত্রিপাঠী। ২৫ বলে ৩৩ রান করেন আনমোলপ্রীত সিং। ১২ বলে ২৬ রানের যোগদান রাখেন এনরিখ ক্লাসেন। ৫ বলে ৬ রান করে আউট হন ক্যাপ্টেন এডেন মার্করাম। ৭ বলে ২৫ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে ম্যাচের সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হন গ্লেন ফিলিপস। ৭ বলে ১৭ রান করে নট-আউট থাকেন আব্দুল সামাদ। ২ বলে ৩ রান করেন মারকো জানসেন।

দি বাংলা ট্রিবিউন

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020